মাইক্রোসফট এক্সসেল অথবা স্প্রেডশিট প্রোগ্রাম সম্পর্কে প্রাথমিক আলোচনাঃ

Excel Tutorial

দীর্ঘ দিন থেকে বিভিন্ন হিসাবের তথ্য গুলোকে কলাম ও সারিতে সাজিয়ে নিয়ে হিসাব করা হতো। সাধারন কাজেই আয়-ব্যয়, মজুরি হিসাব ইত্যাদি হিসাবের কাজে, এই ভাবে কলাম ও সারির ব্যবহার দেখা যেত।  কলাম ও সারির প্রত্যেকটি উপাদানকে বলা হয় ঘর বা সেল। প্রত্যেকটি সেলকে অন্য সেলের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত করা যায়। এই ভাবে হিসাব রাখা কে বলা হতো স্প্রেডশিট।

 

ইলেকট্রনিক্স যন্ত্র আবিষ্কার এরপর ইলেকট্রনিক্স স্প্রেডশিট এর প্রচলন হয়। কম্পিউটার এর ব্যবহার ও  ব্যপ্তি বাড়ার সংগে স্প্রেডশিট প্রোগ্রাম ও কম্পিউটার এ ঢুকে পরে।

 

কম্পিউটারে হিসাব-নিকাশ করার এক ধরনের সাধারন প্রোগ্রাম হলো স্প্রেডশিট প্রোগ্রাম। বাজেট কিংবা নানাবিদ হিসাব-নিকাশের এই প্রোগ্রামে উপাত্তগুলোকে রাখা হয় বিভিন্ন সেলে, যে সেলগুলোর মধ্যে পারস্পারিক সম্পর্ক তৈরি করা যায়। সূত্রের মাধ্যমে এবং এর ফলে কোন সেলের উপাত্তের পরিবর্তন হলে সম্পর্কযুক্ত অন্যান্য সেলের উপাত্ত স্বয়ংক্রিয়ভাবে হাল-নাগাদ হয়ে যায়।

স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের সহজ-সরল হিসাবনিকাশের বিশ্লেষণ ও করা যায়। এ ধরনের প্যাকেজ প্রোগ্রাম কে কিছু ডেটাবেজের কাজও করা যায়।

 

সাধারণ হিসাব নিকাশের কাজও কাগজে লিখে ক্যালকুলেটর এর বোতাম টিপে সহজেই করে ফেলা যায়।  বড় ধরনের হিসেবের কাজও ক্যালকুলেটরের ব্যবহার করে সমাধান করা যায়। আঙ্গুলের কর গুনে গুনে এবং কাগজে লিখে যোগ বিয়োগ গুণ ভাগ করে একটি হিসাব মিলাতে যত সময় লাগে।  ক্যালকুলেটরের সাহায্যে তার চেয়ে অনেক কম সময়ে ওই হিসাবটি করা যায়। তার চেয়েও অনেক কম সময়ে হিসাবটি করা যায় স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের সাহায্যে।

 

মনে করি, তিন চার অংক বিশিষ্ট সংখ্যার যোগ করতে হবে ।  ক্যালকুলেটরের সাহায্য করার জন্য 20 বার তিন চারটি করে বোতাম টিপতে হবে।  সেই সঙ্গে প্রতিবারই + চিহ্ন চাপ দিতে হবে। কিন্তু স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের সাহায্যে খুব বেশি 4 বা 5 সেকেন্ডের মধ্যেই এটি করে ফেলা যাবে। সংখ্যাগুলো কাগজে লিখে এবং কম্পিউটারে টাইপ করতে হয়তো একই রকম সময় লাগবে।  কিন্তু যোগ এর একটি স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের সাহায্যে অকল্পনীয় দ্রুত গতিতে যোগ করা যাবে। আবার ক্যালকুলেটরের বোতাম টিপতে ভুল হলে যোগফল ভুল হবে। এ ধরনের ভুল হতেই পারে। ভুল হয়ে গেলে আবার প্রথম থেকে শুরু করার প্রয়োজন হতে পারে।  কিন্তু স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের ভুল হয় না। স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের আরো একটি সুবিধা আছে। একবার যোগফল নামানোর পর যদি কোন একটি বা অনেকগুলো সংখ্যা পরিবর্তন করা হয়, তাহলে যোগফল স্বয়ংক্রিয় ভাবে পরিবর্তন হয়ে নতুন সঠিক হিসাব অনুযায়ী বিন্যস্ত হবে। কিন্তু ক্যালকুলেটরের সাহায্যে এ রকম পরিবর্তিত হিসাবটি নতুনভাবে করতে সময় লাগবে এবং কাগজে আবার পূর্ববর্তী সংখ্যাগুলো ঘষে তুলে নতুন সংখ্যাগুলো লিখতে হবে।  যতবার ভুল হতে থাকবে ততোবারই ওই কাজটির পুনরাবৃত্তি করতে হবে। অথচ স্প্রেডশিট শুধু পরিবর্তিত সংখ্যাগুলো টাইপ করে দিলেই হবে। সম্পূর্ণ হিসাব আপনা-আপনি পূনর্বিন্যাস হয়ে যাবে। স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের বৈশিষ্ট্য বড় ও মিশ্র হিসাবের কাজের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। স্প্রেডশিট প্রোগ্রামটি তৈরি করা হয় 1979 সালে সর্বপ্রথম। তখন কার সময়ে এই প্রোগ্রামটির নাম ছিল ভিসিকেল। এটি সর্ব প্রথম ইলেকট্রনিক্স স্প্রেডশিট প্রোগ্রাম।  এটি তৈরী করেন ডান ব্রিকিন এবং বব ফ্র্যাঙ্কস্টিম।

  1. Lotus 1-2-3
  2. Microsoft Excel
  3. Open Office Excel
  4. King Office Excel

 

Leave a Reply